রায়পুর সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা সেবার মান উন্নত করার দাবিতে মানববন্ধন
প্রথম পাতা » আমাদের রায়পুর » রায়পুর সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা সেবার মান উন্নত করার দাবিতে মানববন্ধন


রবিবার ● ২৯ এপ্রিল ২০১৮

---রায়পুর নিউজ প্রতিবেদক : লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলা সরকারি হাসপাতালের ডাক্তার,নার্স বৃদ্ধিসহ চিকিৎসা সেবার মান উন্নত করার দাবিতে মানববন্ধন করা হয়েছে।

সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলন রায়পুর উপজেলা শাখার উদ্যেগে শনিবার সকাল ১০ টার সময় রায়পুর সরকারি হাসপাতালের সামনে রায়পুর-লক্ষ্মীপুর আঞ্চলিক মহাসড়কের উপর মানববন্ধন করে সংগঠনের নেতা কর্মীরা ছাড়া আরও বিভিন্ন রাজনৈতিক সামাজিক এবং সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃ বৃন্দ। রায়পুর সরকারি হাসপাতালে ডাক্তার,নার্স বৃদ্ধিসহ রোগীদের সেবা প্রদানে প্রয়োজনীয় যন্ত্রাংশ স্থাপন,হাসপাতালের শয্যা সংখ্যা ৫০ থেকে ১০০ তে উন্নিতকরণ করার উপর গুরুত্বারোপ করে বক্তব্য রাখেন সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলন কেন্দ্রীয় কমিটির অর্থ বিষয়ক সম্পাদক মামুনুর রশিদ। হাসপাতালের ভিতর বহিরাগত দালালদের প্রবেশাধিকার নিশিদ্ধ করতে হুশিয়ারি উচ্চারণ করে বক্তব্য রাখেন রায়পুর নিউজ টুয়েন্টিফোর ডটকমের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলন রায়পুর উপজেলা শাখা আহ্বায়ক মোঃ আজম। তিনি বলেন হাসপাতালের বিভিন্ন স্তরে বর্তমানে দালালদের উৎপাত লক্ষ্য করা যাচ্ছে, ৫ টাকা মূল্যের টিকেট অনেকসময় দালাল চক্র অধিক মূল্যে বিক্রি করে রোগীদের সাথে প্রতারণা করছে। একটি সরকারী হাসপাতালে দালালের প্রবেশাধিকার কি করে হয় ? আমরা রায়পুর উপজেলার স্থানীয় জনগণ আর সহ্য করবোনা। দালালের প্রবেশাধিকার ঠেঁকাতে আজকে মানববন্ধন করছি প্রয়োজনে লাঠি হাতে নেওয়া হবে। এছাড়াও হাসপাতালের বিভিন্ন বিষয়ের উপর আরও বক্তব্য রাখেন ছাত্রলীগ নেতা পাপেল মাহমুদ, ফখরুল ইসলামসহ অন্যান্যরা।---

উল্লেখ্য রায়পুর উপজেলার ৫০ শয্যা বিশিষ্ট সরকারী হাসপাতালটি দীর্ঘদিন যাবত অবহেলিত, এখানে ডাক্তার-নার্স সংকটের কারণে রোগীরা সঠিক স্বাস্থ্যসেবা পাচ্ছেনা, ফলে ডাক্তার-নার্সসহ জনবল বৃদ্ধি করা,শূন্য কৌটায় জনবল নিয়োগ দিয়ে চিকিৎসা সেবার মান উন্নত করার দাবি এই উপজেলার সকল নাগরিকের। অভিযোগ রয়েছে এ হাসপাতালে চিকিৎসকরা সময়মত পৌঁছান না, সরকারি ডাক্তাররা একটু সুযোগ পেলেই প্রাইভেট হাসপাতালে যেতে অভ্যস্থ। এছাড়া এখানে প্রয়োজন রয়েছে এক্স-রে মেশিন, ইসিজি মেশিন, ডেন্টাল বিভাগের চিকিৎসা সামগ্রী, হাসপাতালের পরিবেশ সবসময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা, সিভিল সার্জনসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ হাসপাতাল ও ক্লিনিকগুলো নিয়মিত তদারকি করা, ভূয়া ডাক্তার-নার্স টেকনোলজিষ্ট দ্বারা রোগীরা যাতে ক্ষতিগ্রস্থ ও প্রতারিত না হয় সে ব্যাপারে কর্তৃপক্ষের নজরদারী রাখা গুরুত্বপূর্ন বলে সচেতন মহল মনে করেন। রায়পুর সরকারি হাসপাতালের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ জাকির হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ডাক্তার-নার্সসহ অন্যান্য শূন্যপদে নিয়োগের জন্য ইতোমধ্যে স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ে ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে চাহিদাপত্র পাঠানো হয়েছে, সকলের সহযোগীতা পেলে অচিরেই সমস্যাগুলো সমাধান হবে, স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে সরকারের পক্ষ্য থেকে আমরা বদ্ধ পরিকর।

বাংলাদেশ সময়: ১২:৫৫:৪২ ● ৫১১ বার পঠিত



পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)



আরো পড়ুন...